Tuesday , December 6 2016
Home / পাঠকের লেখা

পাঠকের লেখা

মুক্ত বিহঙ্গ

ghughu

মুক্ত বিহঙ্গ মোঃ মোজাফ্ফার হোসেন ঘুঘু ঘুঘু করে ডাকছে সরুপদার মিয়াদের বাশঁবাগানে। বাগান তো নয় বনাঞ্চল। বাস করে ঘুঘু,শালিক, টিয়া দোয়েল, চড়াই ময়না। এগাছ থেকে ও গাছে এ ডাল থেকে ও ডালে সারা বন করে ছুটোছুটি করে সবাই লুটোপুটি। আনন্দের মাঝে বিষাদের ছায়া শিকারীর ছোবলে ছারখার হলো সব তছনছ। ঘুঘু ঘুঘু করে ডাকছে এতো ডাক নয় শুধুই আর্তনাদ। প্রেয়সীরকে পাওয়ার ব্যর্থ চিৎকার। ঘুঘু ঘুঘু বনের পাখি, বৃক্ষ, প্রাণী শুধুই করে আহাজারি করে না মানবকুল। প্রেয়সীকে নিয়ে কখন যাবে নীড়ে দিগন্ত থেকে দিগন্তে স্বপ্নের বাসা বাঁধে। অকাল প্রয়ানে সবই হলো ছারখার ভারী হয় সরুপদা গ্রামের আকাশ বাতাশ তরুলতা কানা পুকুরের রুই কাতলা। ঘুঘু ডাক দেয় নতুন সকালের আগমনী বার্তা কৃষকের ঘরে আনন্দের বন্যা। মুক্তমনে উড়তে দাও আমাদেরকে বাঁচতে দাও।

Read More »

১৯৬৫ – প্রেসিডেন্ট নির্বাচন ইতিহাস

bd-projonmo

প্রজন্ম ডেস্কঃ সোহরোওয়ারদির আকস্মিক মৃত্যুতে পাকিস্তানের রাজনীতিতে স্থবিরতা নেমে আসে । দুই পাকিস্তানের প্রায় সব রাজনীতিবিদ এক হয়েছিলেন সোহরোওয়ারদির নেতৃত্বাধীন এন ডি এফের পতাকাতলে । কিন্তু মহান নেতার মৃত্যুর সাথে সাথে এই ঐক্যের অবসান ঘটে । শেখ মুজিবর রহমান – মওলানা আব্দুর রসীদ তর্কবাগীশের নেতৃত্বে পূর্ব পাকিস্তান আওয়ামী লীগ, মাওলানা ভাসানীর নেতৃত্বে ন্যাপসহ অন্যান্য দল পুনরুজ্জীবিত হয় । কিন্তু আওয়ামী লীগের প্রবীণ নেতৃত্বের একটি অংশ এই পুনরুজ্জীবনকে সমর্থন করেন নি । তাই আবুল মনসুর আহমেদ , আতাউর রহমান খানসহ সোহরোওয়ারদিপন্থীদের একটি অংশ আওয়ামী লীগের বাইরে রয়ে যান । মূলত এর পর থেকেই শেখ মুজিবর রহমানই হয়ে যান আওয়ামী লীগের মুল প্রাণ । এদিকে আগেই ঘোষণা দেওয়া হয়েছিল ১৯৬৫ সালে প্রেসিডেন্ট নির্বাচন হবে । সরকারি দলের প্রার্থী অবশ্যই প্রেসিডেন্ট আয়ুব খান । বেঁচে থাকলে অবশ্যই সোহরোওয়ারদি হতেন বিরোধী দলের অবিসংবাদী প্রার্থী । তাঁর অবর্তমানে সম্মিলিত বিরোধীদল কায়েদে আযম মোহাম্মদ আলী জিন্নাহ’র সহোদরা মিসেস ফাতেমা জিন্নাহকে প্রার্থী হিসেবে দাঁড় করান । সম্মিলিত ...

Read More »

”সফলদের স্বপ্নগাথা বেয়ার গ্রিলস বারবার পড়ে গেলেও, বারবার উঠে দাঁড়াও”

projonmo-news

প্রজন্ম পাঠক মাইকেল শিকদারঃ বেয়ার গ্রিলস দুঃসাহসী এক অভিযাত্রীর নাম। ডিসকভারি চ্যানেলের ম্যান ভার্সেস ওয়াইল্ড অনুষ্ঠানের সঞ্চালক হিসেবেই তিনি বহুল পরিচিত। যুক্তরাজ্যে তিনি সবচেয়ে কম বয়সে প্রধান স্কাউট স্বীকৃতি পেয়েছেন। যুক্তরাষ্ট্রের জিকিউ সাময়িকীতে তিনি লিখেছেন, কীভাবে বাঁধা পেরোতে হয় আমার মনে আছে, তখন আমি বেশ ছোট। প্রচণ্ড শীতের সকালে বাবা আমাকে সমুদ্রের পাড়ে ঘোড়ায় চড়াতে নিয়ে গেলেন। প্রথমে আমাদের ঘোড়া খানিকটা দুলকি চালে হাঁটল, এরপর একসময় দৌঁড়াতে শুরু করল। ঘোড়ার গতির কারণে আমি কিছুক্ষণ পরপর ঘোড়ায় বাঁধা বসার আসন থেকে শূন্যে উঠে যাচ্ছিলাম। বেশ লাগছিল। মনে হচ্ছিল আমি উড়ছি। কিন্তু হঠাৎ কিছু বুঝে ওঠার আগেই আমি নিজেকে ঠাণ্ডা, নরম বালুর মধ্যে আবিষ্কার করলাম। বাবা মুখে বড় একটা হাসির রেখা টেনে হাততালি দিতে দিতে আমার কাছে এগিয়ে এলেন। বললেন, ‘তুমি কতটা ভালো অশ্বারোহী, সেটা মূল কথা নয়। বরং কতবার পড়ে গিয়ে তুমি কতবার আবার ঘোড়ার পিঠে উঠে বসেছ, সে সংখ্যাটাই বড়। অশ্বারোহন আর জীবন—দুটো ক্ষেত্রেই এটা তোমার কাজে আসবে।’ বাবা সেদিন ...

Read More »

কী করবে বিএনপি? আন্দোলনের ‘গর্জনে’ এবার ‘বর্ষণ’ হয় কিনা!

kazi_-bprojonmo

কোরবানির ঈদের পর বিএনপি নতুন করে আন্দোলনে নামবে বলে শোনা যাচ্ছে। বাংলাদেশ প্রতিদিন ৯ সেপ্টেম্বর লিখেছে, পার্টি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া হজব্রত পালন করে দেশে ফেরার পর রামপাল কয়লাভিত্তিক বিদ্যুেকন্দ্র নির্মাণ বন্ধের দাবিতে কর্মসূচি দেবে। ‘মাঠে নামার ইস্যু খুঁজছে বিএনপি’ শিরোনামে প্রকাশিত সংবাদ বিশ্লেষণে বলা হয়েছে, রামপালের পাশাপাশি জনমুখী নানা ইস্যুতে আরও বড় পরিসরে মাঠে নামারও পরিকল্পনা নেওয়া হচ্ছে।  এ জন্য আওয়ামী লীগ জোটের বাইরের রাজনৈতিক দলগুলোকেও সম্পৃক্ত করার সর্বোচ্চ চেষ্টা চলছে। সংবাদ বিশ্লেষণে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, জেএসডির সভাপতি আ স ম আবদুর রব, বিকল্পধারার চেয়ারম্যান অধ্যাপক বদরুদ্দোজা চৌধুরী এবং গণফোরামের সভাপতি ড. কামাল হোসেনকেও উদ্ধৃত করা হয়েছে। দুটি বিষয় এখানে আলোচনায় আসতে পারে। ১. দেশে এত ইস্যু এলো, গেল, বিএনপি ইস্যু খুঁজে পাচ্ছে না আন্দোলনের জন্য? তাহলে তো বলতে হয়, ইস্যুর জন্য বিএনপি পত্রিকায় ও টিভি চ্যানেলে বিজ্ঞাপন দিলেই পারে। ২. মাসখানেক আগেই বিএনপি জঙ্গিবাদ মৌলবাদবিরোধী ঐক্য গড়ার একটা উদ্যোগ নিয়েছিল। সে উদ্যোগ কেন ব্যর্থ হলো, ...

Read More »