Thursday , December 8 2016
Home / Slider / সুন্দরবনে শুরু হয়েছে ৪ মাস ব্যাপী বাঘ গণনা
প্রকাশঃ 30 Nov, 2016, Wednesday 8:10 AM || অনলাইন সংস্করণ
tiger

সুন্দরবনে শুরু হয়েছে ৪ মাস ব্যাপী বাঘ গণনা

প্রজন্ম ডেস্ক: ওয়ার্ল্ড হ্যারিটেজ সুন্দরবনে রয়েল বেঙ্গল টাইগারের সঠিক সংখ্যা নিরুপনে মঙ্গলবার থেকে শুরু হয়েছে বাঘ গণনার কাজ।

বাংলাদেশে বন্য প্রাণীর সর্ববৃহৎ আবাসস্থল ৬ হাজার ১৭ বর্গ কিলোমিটার আয়তনের সুন্দরবনের আধুনিক ক্যামেরা ট্রাকিং এর মাধ্যমে এবার ৪ মাস ধরে চলবে বাঘ শুমারী।  মঙ্গলবার দুপুরে পশ্চিম সুন্দরবন বিভাগের বুড়িগোয়ালিনী রেঞ্জের দোবেকী ফরেস্ট অফিসে আনুষ্ঠানিকভাবে বাঘ শুমারীর উদ্বোধন করেন খুলনা অঞ্চলের বন সংরক্ষক ও বাঘ গণনার প্রকল্প পরিচালক জহির উদ্দিন আহমেদ।

এসময় অন্যান্যদের মধ্যে পশ্চিম সুন্দরবন বিভাগের বিভাগীয় বন কর্মকর্তা (ডিএফও) সাইদ আলী, সুন্দরবন ওয়ার্ল্ড লাইফ বিভাগের ডিএফও মদিনুল আহসান, ওয়ার্ল্ড টাইগার প্রজেক্টের বাঘ বিশেষজ্ঞ স্মিথ সনিয়ান। বাগেরহাটের সুন্দরবন বিভাগ জানায়, ১৯৯৬-৯৭ সালে বাঘ শুমারীতে সুন্দরবনের বাঘ ছিলো ৪০০টি। আধুনিক প্রযুক্তি ক্যামেরা  ট্রাকিং এর মাধ্যমে সর্বশেষ ২০১৩-১৪ সালের নভেম্বরে বাঘ শুমারীতে সুন্দরবনের বাংলাদেশ অংশে বাঘের সংখ্যা আশংঙ্কাজনক হারে কমে দাড়ায় মাত্র ১০৬ টিতে।

সুন্দরবনে বাংলাদেশ অংশে বাঘের সংখ্যা সর্বশেষ জরিপে মাত্র ১০৬টিতে এসে দাড়ালে বাংলাদেশসহ সারা বিশ্বের পরিবেশবাদীদের মধ্যে শুরু হয় তোলপাড়। সুন্দরবনের বাঘ রাক্ষায় এগিয়ে আশে ওয়াল্ড লাইফ প্রকল্পের টাইগার টিম ও ইউএসএআইডি।  গত ২ বছর ধরে সুন্দরবনে বাঘের অবাধ বিচরণ, বংশবিস্তার ও বাঘের নিরাপত্তা রক্ষায় বন বিভাগ বিভিন্ন প্রকল্প গ্রহণ করে।

ইউএসএ আইডির অর্থায়নে সমগ্র সুন্দরবনে শুরু করা হয় স্মাট পেট্রোলিং নামে আধুনিক প্রযুক্তি নির্ভর টহল ব্যবস্থা। বন বিভাগের এসব ব্যবস্থা গ্রহণ করায় সুন্দরবনে বাঘের বংশ বিস্তারে স্বাভাবিক অবস্থা ফিরে আসে। এই অবস্থায় গত এক বছর ধরে সুন্দরবনের জেলে ও বনজীবিসহ বন কর্মকর্তা-কর্মচারীদের চোখে পড়ে ছোট ছোট বাচ্চা নিয়ে বাঘের ঘুরে বেড়ানোর দৃশ্য। একাধিক দায়িত্বশীল সূত্র থেকে সুন্দরবনের বাঘিনীদের বাচ্চা দেয়া ও ঘুরে বেড়ানোর দৃশ্য বন বিভাগকে আশান্বিত করে তুলেছে। এ অবস্থায় সুন্দরবন পূর্ব ও পশ্চিম বিভাগের চারটি রেঞ্জে ৫৮টি কম্পার্টমেন্ট জুড়ে নতুন করে বাঘ শুমারীর সিদ্ধান্ত নেয়।

খুলনা অঞ্চলের বন সংরক্ষক ও বাঘ গণনার প্রকল্প পরিচালক জহির উদ্দিন আহমেদ জানান, এবারের বাঘ গণনায়ও আধুনিক প্রযুক্তি নির্ভর ক্যামেরা ট্রাকিং পদ্ধতি ব্যবহার করা হচ্ছে। ওয়াল্ড লাইফ প্রকল্পের টাইগার টিম ও ইউএসএআইডি’র অর্থায়নে টাইগার টিমের বিদেশী বিশেষজ্ঞদের তত্বাবধানে বন বিভাগ সুন্দরবন সন্নিহিত লোকালয়ের যুবকদের প্রশিক্ষণ দিয়ে এবার বাঘ গণনা শুরু করা হয়েছে। মঙ্গলবার থেকে শুরু হওয়া এ বাঘ শুমারী ১২০ দিন অর্থাৎ চার মাস ধরে চলবে। এই বন কর্মকর্তা আশা করছেন এবারের বাঘ গণনায় সুন্দরবনে বাঘের সংখ্যা অনেক বাড়বে।

Check Also

red-card

ক্রিকেটেও লাল কার্ডের সুপারিশ

স্পোর্টস ডেস্ক: এবার ক্রিকেট মাঠেও অন্যায়কারী ক্রিকেটারের বিপক্ষে তাৎক্ষণিক শাস্তির ব্যবস্থা নিতে ক্ষমতা দেয়াহচ্ছে আম্পায়ারদের। ...