Saturday , December 10 2016
সদ্য প্রাপ্ত
Home / Slider / সুখবর বাঘ আসছে
প্রকাশঃ 23 Sep, 2016, Friday 3:10 PM || অনলাইন সংস্করণ
tiger_projonmo

সুখবর বাঘ আসছে

প্রজন্ম  ডেস্কঃ চট্টগ্রাম চিড়িয়াখানায় নেই জাতীয় স্মারক ‘বাঘ’। ২০১২ সালের অক্টোবর মাসে পূর্ণিমা নামো বাঘিনী মারা যাওয়ার পর থেকে বাঘশূন্য হয়ে পড়ে চট্টগ্রাম চিড়িয়াখানা। বাঘহীন চিড়িয়াখানা শ্রীহীন হয়ে পড়ে। তবে এ বিষয়ে সুখবর দিলেন চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসক মেজবাহ উদ্দিন।

ডিসি বলেন, সিংহের পর এবার চট্টগ্রাম চিড়িয়াখানায় একজোড়া বাঘ আনা হবে। আফ্রিকা থেকে ৪৫ দিনের মধ্যেই বাঘ চিড়িয়াখানায় আসবে। চট্টগ্রাম চিড়িয়াখানায় সিংহ-সিংহীর বিয়ে অনুষ্ঠান উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে এই তথ্য দেন তিনি।
ডিসি মেজবাহ উদ্দিন বলেন, চিড়িয়াখানায় বাঘ নেই। ইতিমধ্যে আমরা টেন্ডার প্রসেস করেছি। দুই মাসের মধ্যে দুটি বাঘ আনা হবে। একটি বাঘ, একটি বাঘিনী। চিড়িয়াখানার নিজস্ব তলবিল থেকে টাকার সংকুলান করা হবে। এছাড়াও সিলেটের মৌলভীবাজার থেকে উল্লুকসহ দুর্লভ প্রজাতির কিছু প্রাণী আনা হবে। সিলেট জেলা প্রশাসকের সাথে এ বিষয়ে কথা হয়েছে।
চিড়িয়াখানা পরিচালনা কমিটির সদস্য সচিব ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ রুহুল আমীন জানান, ৩৩ লাখ টাকা দামে একজোড়া বাঘ আনা হচ্ছে। ৭ মাস বয়সী বাঘ দুটি আফ্রিকা থেকে আনা হবে।

৪৫দিনের মধ্যে তা চট্টগ্রাম চিড়িয়াখানায় আনা হবে। সেলকন ট্রেডার্স নামের একটি প্রতিষ্ঠানের সাথে চুক্তি হয়েছে।
চট্টগ্রাম চিড়িয়াখানার ডেপুটি কিউরেটর চৌধুরী মো. মনজুর মোরশেদ জানান, আমাদের দেশের বাঘ দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে আনতে হচ্ছে। আমাদের চিড়িয়াখানাগুলোর মধ্যে সমন্বয় ও সুপরিকল্পনা থাকলে বাঘ বিদেশ থেকে আমদানি করতে হতো না। ভারতে দেখেছি, প্রতিটি চিড়িয়াখানার পশুপাখির তালিকা ওয়েবসাইটে নিয়মিত আপডেট করা হয়। এর ফলে কোনো চিড়িয়াখানায় একই লিঙ্গের পশু থাকলে অন্য চিড়িয়াখানা সহজে বদল করতে পারে। আমাদের এখানে বছরের পর বছর দুটি সিংহী ছিল, রংপুরে দুটি সিংহ ছিল। কোনো সমন্বয় ছিল না বলে একই লিঙ্গের প্রাণীগুলো নিঃসঙ্গভাবে বেড়ে ওঠেছিল। কিন্তু সংবাদপত্রে একটি প্রতিবেদন দেখেই তিন মাস চিঠি চালাচালির মাধ্যমে অদল-বদল করেছি।

২০১২ সালের অক্টোবর মাসে বাঘিনী ‘পূর্ণিমা’ মারা যায়। এর আগে ২০০৯ সালে বাঘিনীর সঙ্গী ‘চন্দ্রা’ মারা যায়। ২০০৯ সালে পূর্ণিমার ক্যান্সার ধরা পড়ার পর একটি বাঘ ও একটি বাঘিনী চেয়ে ঢাকা চিড়িয়াখানা ও ডুলাহাজারা সাফারি পার্ক কর্তৃপক্ষকে চিঠি দিলেও কোনো সাড়া পাওয়া যায়নি। শেষতক নিজস্ব তহবিল থেকে আন্তর্জাতিক টেন্ডারের মাধ্যমে একজোড়া বাঘ আনা হচ্ছে। এতে চিড়িয়াখানায় দীর্ঘদিনের অভাব পূরণ হতে যাচ্ছে।

Check Also

cu_b

চবির হলে পুলিশের অভিযানে অস্ত্র উদ্ধার:ছাত্রলীগের ৩০ নেতাকর্মী আটক

মাসুম চট্টগ্রাম প্রতিনিধি:চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষের পর শাহ জালাল ও শাহ আমানত ...