Saturday , December 3 2016
সদ্য প্রাপ্ত
Home / Slider / বাংলাদেশকে পানি ব্যবস্থাপনায় সহযোগিতার আশ্বাস দিল হাঙ্গেরি
প্রকাশঃ 29 Nov, 2016, Tuesday 12:51 AM || অনলাইন সংস্করণ
hasina_hangri2

বাংলাদেশকে পানি ব্যবস্থাপনায় সহযোগিতার আশ্বাস দিল হাঙ্গেরি

ঢাকা: বাংলাদেশকে পানির যথার্থ ব্যবস্থাপনায় তার দক্ষতা ও অভিজ্ঞতা থেকে হাঙ্গেরি সহযোগিতা দেবে এমন আশ্বাস দিয়েছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট ইয়ানোস আদের। আর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তাকে জানিয়েছেন জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে সৃষ্ট প্রভাবগুলো মোকাবেলায় বাংলাদেশ যেসব কার্যকর পদক্ষেপ নিয়েছে সেগুলোর কথা।

স্থানীয় সময় সোমবার (২৮ নভেম্বর) বিকেলে হাঙ্গেরির রাজধানী বুদাপেস্টে দুই নেতার বৈঠক ছিলো অত্যন্ত হৃদ্যতাপূর্ণ আর খোলামেলা। বিশ্বে পানি ব্যবস্থাপনায় হাঙ্গেরিই নেতৃত্ব দিচ্ছে।

বৈঠকের পর পররাষ্ট্র সচিব শহিদুল হক সাংবাদিকদের ব্রিফিংয়ে জানান, হাঙ্গেরির প্রেসিডেন্ট বাংলাদেশের সামনে জলবায়ু পরিবর্তনের সবচেয়ে বড় হুমকি হয়ে আসা সমুদ্রের স্তর বেড়ে যাওয়ার প্রসঙ্গ টেনে শেখ হাসিনার কাছে জানতে চান কিভাবে হাঙ্গেরি বাংলাদেশকে সহযোগিতা করতে পারে। শেখ হাসিনা এই হুমকির গভীরতা তুলে ধরতে, দুই মিটার পর্যন্ত সমুদ্রের স্তর বেড়ে গেলে তাতে দুই থেকে আড়াই কোটি মানুষ বাস্তুচ্যুত হয়ে পড়বে জানিয়ে বলেন, হুমকির মুখে থাকা এই জনগোষ্ঠীর জন্য এরই মধ্য সরকার নিজস্ব তহবিল গঠন করেছে, সবুজ বেষ্টনী, গ্রাম তৈরিসহ নানা কর্মসূচি সরকারের রয়েছে।

শহীদুল হক জানান, বাংলাদেশে এসে এই প্রকল্পগুলো দেখার জন্য ইয়ানোস আদেরকে বিশেষ আমন্ত্রণ জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

বাংলাদেশের ছাত্র-ছাত্রীদের জন্য নতুন স্কলারশিপের সুযোগ দেওয়ার বিষয়টি বৈঠকে উঠে আসে। তবে এ ব্যাপারটি মঙ্গলবার দুই দেশের প্রধানমন্ত্রী পর্যায়ের বৈঠকে আনুষ্ঠানিকভাবে উপস্থাপিত হবে বলেও জানান পররাষ্ট্র সচিব। বাংলাদেশের শিক্ষার্থীদের চিকিৎসা, প্রযুক্তি ও কৃষি বিষয়ক অধ্যায়নে বৃত্তি দিতে হাঙ্গেরি প্রস্তুত বলেও জানান তিনি।

সচিব জানান, বাংলাদেশে ফিস কালচার ও অ্যাকুয়া কালচারের ক্ষেত্রেও হাঙ্গেরির পক্ষ থেকে সহযোগিতার প্রস্তাব দিয়েছেন রাষ্ট্রপতি।

দুই নেতার এই বৈঠকের মধ্য দিয়ে হাঙ্গেরির সঙ্গে বাংলাদেশের সহযোগিতার নতুন দ্বার উন্মোচিত হবে এই আশ্বাসও তুলে ধরেন পররাষ্ট্র সচিব।

প্রধানমন্ত্রী এ সময় বাংলাদেশে বিনিয়োগের সম্ভাবনা, আইসিটি খাতের সম্ভাবনা, জাহাজ নির্মাণ শিল্পের সম্ভাবনার কথা তুলে ধরেন। তবে আলোচনায় গুরুত্বের সঙ্গে উঠে আসে পানি সম্পদ ব্যবস্থাপনায় আন্তর্জাতিক সহযোগিতর প্রসঙ্গ। উদ্ভাবনী আইডিয়া ও প্রযুক্তি সম্প্রসারণের ক্ষেত্র বাংলাদেশ ও হাঙ্গেরির মধ্য সহযোগিতার সম্পর্ক আরও বাড়তে পারে বলেই মত দেন শেখ হাসিনা।

অর্থ অনুদান কিংবা সহায়তা দিয়ে নয়, তার চেয়ে নতুন নতুন প্রযুক্তি দিয়ে, উদ্ভাবনগুলো শেয়ার করাই হতে পারে বাংলাদেশের জন্য সবচেয়ে বড় সহযোগিতা, বলেন তিনি।

বঙ্গবন্ধু হত্যার পর দুই দেশের সম্পর্কের মধ্যে যে চিড় ধরেছিলো তা পুনরুদ্ধার করার বিষয়েও এই বৈঠকে আলোচনা হয়।

হাঙ্গেরি তার পানি বিশুদ্ধকরণ পদ্ধতি প্রয়োগ করে বাংলাদেশের বন্যাকবলিত এলাকায় নিরাপদ খাবার পানি সহজলভ্য করার বিষয়ে আগ্রহ দেখায়।

সব মিলিয়ে বেশ কিছু নতুন বিষয় এই দুই দেশের মধ্যে বেড়ে উঠবে যা এই বৈঠকের মধ্য দিয়েই প্রকাশ পেলো বলে জানান পররাষ্ট্র সচিব।

Check Also

dhaka

তামিমদের ১৩৪ রান টার্গেটে ব্যাট করছে সাকিবের ঢাকা

স্পোর্টস ডেস্কঃ বিপিএলের হাইভোল্টেজ ম্যাচে মাঠের লড়াইয়ে নামে পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে থাকা ঢাকা ডায়নামাইটস এবং ...