Saturday , December 3 2016
সদ্য প্রাপ্ত
Home / Slider / নব্য জেএমবির প্রধান কে? এই নিয়ে র‌্যাব প্রধানের তীব্র সমালোচনায় পুলিশ কর্মকর্তা মনিরুল
প্রকাশঃ 26 Oct, 2016, Wednesday 8:32 PM || অনলাইন সংস্করণ
rabpolish

নব্য জেএমবির প্রধান কে? এই নিয়ে র‌্যাব প্রধানের তীব্র সমালোচনায় পুলিশ কর্মকর্তা মনিরুল

প্রজন্ম ডেস্ক: গুলশানে ইতালীয় নাগরিক তাভেল্লা সিজার হত্যা মামলা এবং নব্য জেএমবির আমির কে- এ নিয়ে র‌্যাব সঙ্গে পুলিশের মতবিরোধ দেখা দিয়েছে। পুলিশ এই ঘটনায় বিএনপি নেতা এম এ কাইয়ুমকে আসামি করে প্রতিবেদন দিয়েছে। তবে র‌্যাবের দাবি, এই খুনে জড়িত নব্য জেএমবি। র‌্যাব প্রধান বেনজীর আহমেদের দাবি, নব্য জেএমবির প্রধান সারোয়ার জাহান। তবে পুলিশ কর্মকর্তা মনিরুল ইসলামের দাবি, তিনি ওই সংগঠনের তৃতীয় সারির নেতা।

সকাল ঢাকা মহানগর পুলিশের জঙ্গিবিরোধী বিশেষ শাখা কাউন্টার টেররিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম ইউনিটের অতিরিক্ত কমিশনার মনিরুল ইসলাম ডিএমপির মিডিয়া শাখায় একটি সংবাদ সম্মেলন করেন। এ সময় তিনি বলেন, তাভেল্লা সিজার হত্যা মামলার বিচার চলাকালে র‌্যাব প্রধান বেজনীর আহমেদ যেভাবে মন্তব্য করেছেন, তা ঠিক হয়নি।

গত শুক্রবার র‌্যাব প্রধান এক সংবাদ সম্মেলনে দাবি করেন, আশুলিয়ায় জঙ্গিবিরোধী অভিযানে নিহত সারোয়ার জাহান ছিলেন নব্য জেএমবির প্রধান। এ সময় তিনি জঙ্গি সংগঠনটির হত্যাযজ্ঞের যে বর্ণনা দেন, তাতে তাভেল্লা হত্যা মামলাও রয়েছে।

অথচ এর আগেই পুলিশ এই মামলা নিয়ে আদালতে প্রতিবেদন দিয়েছে, যাতে হুকুমের আসামি করা হয়েছে বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতা এম এ কাইয়ুমকে। পলাতক এই বিএনপি নেতার ভাইসহ কয়েকজনকে পুলিশ গ্রেপ্তারও করেছে। তাদের প্রায় সবাই আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দিও দিয়েছেন।

পুলিশ কর্মকর্তা মনিরুল ইসলামের কাছে সাংবাদিকরা জানতে চান, এই হত্যা মামলা নিয়ে পুলিশ না র‌্যাব- কার কথা ঠিক।

জবাবে মনিরুল বলেন, ‘তাভেল্লা হত্যা মামলাটি বিচারাধীন। এই মামলা নিয়ে ওইভাবে মন্তব্য করার সুযোগ নেই। ডিবির গোয়েন্দা বিভাগ ঢাকা মেট্রপলিটন পুলিশের একটা পরীক্ষিত তদন্ত সংস্থা। প্রতি মাসেই তাদের দুই একটা করে মামলা শেষ হচ্ছে। সাজা হচ্ছে উল্লেখযোগ্য পরিমাণে। এসব যদি দেখে তদন্তের মান পরিমাপ করা হলে সেটাও ভালো।’

মনিরুল বলেন, ‘তদন্তের ফৌজদারি মামলা পরিচালিত হয় স্বাক্ষ্যপ্রমাণের ভিত্তিতে, কোন রচনা কাব্য বা ক্রিয়েটিভ কোন ওয়ার্কের সুযোগ নেই। অর্থাৎ স্বাক্ষপ্রমাণের ভিত্তিতেই করা হয়। … একদল পেশাদার অফিসার তদন্ত কর্মকর্তাদের সহায়তা করেই তদন্ত কাজটি হয়েছে।’

মনিরুল ইসলাম বলেন, ‘এই তদন্তে যার সম্পৃক্ততা বেরিয়ে এসেছে তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দাখিল করা হয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে গতকাল (মঙ্গলবার) বিজ্ঞ আদালত চার্জ গঠন করেছেন এবং মামলাটির আনুষ্ঠানিক বিচার কাজ শুরু হয়েছে। এই পর্যায়ে যাদের সম্পৃক্ততা আমরা পেয়েছি তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দাখিল করা হয়েছে।’

র‌্যাব প্রধানের বক্তব্যের কারণে এই মামলার আসামিরা বাড়তি কোনো সুবিধা পাবেন কি না-জানতে চাইলে মনিরুল ইসলাম বলেন, ‘দেখুন আমি তার  (বেনজীর) স্বাক্ষাৎকারটি শুনিনি। আমার ধারণা যে উনি এটি বলেননি। কারণ,  কোনো দায়িত্বশীল ব্যক্তি একটি বিচারাধীন মামলা নিয়ে মন্তব্য করতে পারে না।’

বিএনপি নেতা এম এম কাইউমের অবস্থান শনাক্ত হয়েছে কি না-জানতে চাইলে মনিরুল বলেন,  ‘দেশের বাইরে  থাকায় ওনাকে গ্রেপ্তার করা যায়নি। তবে তার বিরুদ্ধে ইতিমধ্যে ওয়ারেন্টও বের হয়েছে, তাকে দেশে এনে গ্রেপ্তার করা হবে।’

নব্য জেএমবির প্রধান কে?

পুলিশ বলেছে, নব্য জেএমবির প্রধান ছিলেন নারায়ণগঞ্জে নিহত তামিম চৌধুরী। কিন্তু গত শুক্রবার র‌্যাব দাবি করেছে, আশুলিয়ায় নিহত সারোয়ার জাহানই নব্য জেএমবির প্রধান।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে মনিরুল ইসলাম বলেন, ‘সে (সারোয়ার জাহান) মূলত তামিমের ডেপুটিদের পরের ধাপের নেতা।

মনিরুল বলেন, ‘তামিম তো আসলে এই গ্রুপটির লিডার। তার ইমিডিয়েট পরের পর্যায়ের নেতাদের সাথে তার যোগযোগ থাকতো। আব্দুর রহমান (সারোয়ার জাহান)  যে পর্যয় ছিল তাতে তামিমের সরাসরি যোগযোগ খুব কম ছিল। হয়তো কখনো কখনো মিটিংয়ে দেখা হয়েছে।’

র‌্যাব দাবি করেছে, গত ২৭ আগস্ট নারায়ণগঞ্জের জঙ্গি আস্তানা ঘিরে ফেলার সময় তামিম আবদুর রহমান (সারোয়ার জাহানের) সঙ্গে যোগাযোগ করেছিলেন।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে মনিরুল বলেন, ‘তামিম চৌধুরীকে ঘিরে ফেলা হয় সকাল ছয় টায় এবং তার পরবর্তিতে তার আগে কাউন্টার টেরিজকমের প্রথম টিমটি যায় ছয়টা পনের কিংবা বিশে। তার আগে ঘিরে ফেলার কোন ঘটনা ঘটেনি। ফলে তার পরে সে কমিউনিকেশন করার খুব বেশি সুযোগ পায়নি। যেটুকু করেছে, তানভীর কাদেরী (আজিমপুর আস্তানায় নিহত) এবং মেজর জাহিদের (রূপনগর আস্তানায় নিহত) করেছে বলে আমাদের কাছে কিছু ডকুমেন্টারি এভিডেন্স (প্রমাণ) রয়েছে।’

র‌্যাব প্রধান জানিয়েছিলেন, এই অভিযানের সময় গভীর রাতে সারোয়ার জাহানের সঙ্গে তামিম চৌধুরীর যোগাযোগ হয়েছিল এসএমএসের মাধ্যমে।

এই মুহূর্তে নব্য জেএমবির প্রধান কে- জানতে চাইলে মনিরুল বলেন, ‘নব্য জেএমবির দ্বিতীয় সারির কেউ কেউ এখন ধরা পরেনি। সম্ভখবত তারাই এখন নেতৃত্ব দিচ্ছে।’

তাদের মধ্যে বরখাস্ত সেনা কর্মকর্তা জিয়াউল হক আছেন কি, ‘আমাদের তদন্তে যতটুকু এসেছে, মেজর জিয়ার সঙ্গে এই গ্রুপটির সরাসরি সম্পর্ক নেই। তিনি একটি গ্রুপ অর্থৎ আনসার আল ইসলামের সঙ্গে জড়িত।’

Check Also

dhaka

তামিমদের ১৩৪ রান টার্গেটে ব্যাট করছে সাকিবের ঢাকা

স্পোর্টস ডেস্কঃ বিপিএলের হাইভোল্টেজ ম্যাচে মাঠের লড়াইয়ে নামে পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে থাকা ঢাকা ডায়নামাইটস এবং ...