Saturday , December 10 2016
সদ্য প্রাপ্ত
Home / প্রবাসী সংবাদ / ধর্ম আইনকে নির্দেশ করতে পারে না: তসলিমা
প্রকাশঃ 20 Oct, 2016, Thursday 3:47 PM || অনলাইন সংস্করণ
taslima

ধর্ম আইনকে নির্দেশ করতে পারে না: তসলিমা

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ আইন ধর্মের ওপর নির্ভর করে তৈরি হয় না, এটি সমতা এবং বিচার ব্যবস্থার ওপর নির্ভর করে। বুধবার এনডিটিভির সাথে এক সাক্ষাৎকারে বিতর্কিত, নির্বাসিত লেখিকা তসলিমা নাসরিন তার নতুন বই ‘নির্বাসন’, তিন তালাক, ডোনাল্ড ট্রাম্প, ভারতে পাকিস্তানি শিল্পীদের ওপর নিষেধাজ্ঞা ও দেশটিতে তার অবস্থানের কারণ ব্যাখ্যা করেন।

তসলিমা বলেন, ‘আমি ভারতের নাগরিক নই কিন্তু আমি এটিকে আমার বাড়ি বলেই মনে করি। নিজেকে আমার কখনোই বহিরাগত মনে হয় না। কিন্তু আমি চাইলেই বাহিরে যেতে পারি না, বন্ধুদের আমার বাসায় দাওয়াত দিতে পারি না। আমাকে প্রতিনিয়ত ভারত ছাড়ার জন্য চাপ প্রয়োগ করা হয়। তাই আমি এটিকে আমার জন্য নিরাপদ বলতে পারি না।’

যদিও ভারতের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিং এর আগে বলেছেন, প্রতি এক বছর পর তসলিমা ভিসা রিনিউ করতে পারবেন এবং তাকে ৫০ বছর ভারতে থাকার অনুমতি দেয়া হবে। কিন্তু বাস্তবে ভিসা রিনিউ করার জন্য অনেক কষ্ট করতে হয়ে বলে জানান তসলিমা।

সুইডেন, যুক্তরাষ্ট্র এবং ইউরোপিয় ইউনিয়নের দেশগুলোর নাগরিক হওয়া সত্ত্বেও থাকার জন্য ভারতকে বেছে নেওয়ার কারণ হিসেবে তসলিমা বলেন, ‘আমি ভারতকে বেছে নিয়েছি কারণ প্রথমত আমি বাংলাদেশে ফিরতে চাই নি। আর দ্বিতীয়ত, আমি বাংলাভাষী বাঙ্গালি, বাংলায় লিখি। আমার বইয়ের পাঠক বাংলা ভাষাভাষী মানুষ। আমার লেখা ভারতীয় উপমহাদেশে চিন্তার স্বাধীনতা এবং নারী স্বাধীনতার জন্য। ভারতে আমি মুক্তমত, নারী স্বাধীনতা, মানবাধিকার, বাক-স্বাধীনতা পেয়েছি। কিন্তু কেন ভারত মুক্তমতের মডেল হতে পারে না?’

তসলিমা নাসরিন বলেন, ‘বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য মুসলিমদের ভোট পেতে আমাকে পশ্চিমবঙ্গ থেকে বের করে দেওয়ার কথা বলেছেন। কিন্ত আমাকে বের করে দিয়ে তিনি মুসলিমদের ভোট পাবেন না। মমতা ব্যানার্জিও আমার টিভি ড্রামা সিরিজ বাতিল করে দিয়েছেন।’ এই সময় তসলিমা কেন তিন তালাক বাদ দেওয়া উচিত এবং কেন পাকিস্তানি শিল্পীদের টার্গেট করা উচিত নয় এর কারণ ব্যাখা করেন।

তিনি বলেন, ‘আমি নাগরিক অধিকারে বিশ্বাস করি। তোমার বিশ্বাস তোমার কাছে। ধর্ম আইনকে নির্দেশ করে না। ১৯৯২ সালে বাংলাদেশে ব্যক্তিগত বিষয় টেনে আনা হয়েছিল এবং অনেক মুসলমান দেশ আমার বিরোধীতা করেছিল কিন্তু ভারত সেটি করে নি। তারা ধর্মনিরপেক্ষ দৃষ্টি দিয়ে একজন মুসলিম নারীকে গ্রহণ করেছে। রাষ্ট্রের ধর্ম থেকে আলাদা হওয়া উচিত।’

ডোনাল্ড ট্রাম্পের ‘ভারতীয় উপমহাদেশের জন্য নারী অধিকারই একমাত্র বিষয় নয়’ এই মন্তব্য সম্পর্কে তসলিমা বলেন, ‘আমি ট্রাম্পের ঘোর বিরোধী কারণ তিনি একজন ভয়ঙ্কর ব্যক্তি। তিনি যদি জয় লাভ করেন এটি আমেরিকা এবং সারা বিশ্বের জন্য ভয়ানক ব্যাপার হবে।’

পাক-ভারত উত্তেজনায় ভারতে পাকিস্তানি শিল্পীদের নিষিদ্ধ করার ব্যাপারে তসলিমা বলেন, ‘পাকিস্তানি সন্ত্রাসীদের নিষিদ্ধ করা উচিত, কেন শিল্পীদের নিষিদ্ধ করবেন। শিল্পীরা পাকিস্তানি সরকার বা সন্ত্রাসী নয়। যেখানে শিল্প উপযুক্ত সম্মান পায় শিল্পীদের স্থান সেখানেই। আজকে পাকিস্তানি শিল্পীদের নিষিদ্ধ করবেন কালকে আমি বাংলাদেশি বলে আমাকে নিষিদ্ধ করবেন। শিল্পী সেই স্থানই প্রাপ্য যেখানে শিল্প সম্মানের জায়গা। তারা পাক সরকার বা সন্ত্রাসী নয়। বেশিরভাগ ভারতীয় শিল্পী এই ইস্যুতে কোন কথা বলেন নি।’

Check Also

libiya_bd

লিবিয়ায় পাচার হওয়া ৬৫ বাংলাদেশি উদ্ধার

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ পাচার হওয়া ৬৫ বাংলাদেশি লিবিয়ায় উদ্ধার ছবিতে প্রদর্শিত চার ব্যক্তি লিবিয়ায় অবৈধভাবে মানবপাচারকারী ...