Saturday , December 10 2016
সদ্য প্রাপ্ত
Home / ক্যাম্পাস / চবিতে অবরোধ সাময়িক স্থগিত
প্রকাশঃ 28 Nov, 2016, Monday 3:49 PM || অনলাইন সংস্করণ
cu-1

চবিতে অবরোধ সাময়িক স্থগিত

ওমর ফারুক মাসুম, চট্টগ্রাম প্রতিনিধিঃ কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সহ-সম্পাদক দিয়াজ ইরফান চৌধুরীকে ‘হত্যা’র প্রতিবাদে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে ছাত্রলীগের একপক্ষের ডাকা অনির্দিষ্টকালের অবরোধ সাময়িকভাবে স্থগিত করা হয়েছে।

সোমবার সকালে দিয়াজ ইরফানের অস্বাভাবিক মৃত্যুবরণের ঘটনায় তার পরিবারের করা হত্যা মামলার অন্যতম আসামি চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারী প্রক্টর আনোয়ার হোসেন চৌধুরীকে তার দায়িত্ব থেকে সাময়িক অব্যাহতি দেওয়ার পর এই সিদ্ধান্ত নেন আন্দোলনকারীরা।

অবরোধের দ্বিতীয় দিন সোমবার সকালে অবরোধ স্থগিতের ঘোষণা দেওয়া হয়।

তাদের পাঁচ দাবির অন্যতম দাবি ছিল আনোয়ার হোসেনকে তার সহকারী প্রক্টরের দায়িত্ব থেকে অপসারণ করা।

আন্দোলনকারী পক্ষের নেতা বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সহ সভাপতি শোভন শুভ  বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, ‘দিয়াজ ভাইকে হত্যার ঘটনার সুষ্ঠু তদন্তের স্বার্থে প্রক্টরিয়াল বডি থেকে সহকারী প্রক্টর আনোয়ার হোসেনকে অপসারণ করার দাবি ছিল আমাদের অন্যতম দাবি। আমাদের সেই দাবি পূরণ হওয়ায় আপাতত আন্দোলন স্থগিত করেছি। আশা করবো আমাদের অন্যান্য দাবিগুলোও মেনে নিয়ে এই হত্যার বিচার করা হবে।’

কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সহ-সম্পাদক দিয়াজ ইরফান চৌধুরীকে ‘হত্যা’র সুষ্ঠ তদন্তসহ পাঁচ দফা দাবিতে বিশ্ববিদ্যালয়ে রোববার সকাল থেকে সাধারণ শিক্ষার্থীদের ব্যানারে আন্দোলন নামে ছাত্রলীগের একটি পক্ষ। অনির্দিষ্টকালের অবরোধের প্রথমদিন শাটল ট্রেনের হোস পাইপ কেটে দিয়ে শাটল ট্রেন চলাচল বন্ধ করে দেয় আন্দোলনকারীরা।

এর ফলে রোববার সকাল থেকে বিশ্ববিদ্যালয়গামী কোনো শাটল ট্রেনই নগর থেকে ছেড়ে যেতে পারেনি। পাশাপাশি অবরোধের সমর্থনে ক্যাম্পাসে একটি সিএনজি অটোরিকশা ও দুইটি ব্যাটারিচালিত রিকশা ভাঙচুর করে অবরোধকারীরা। তবে অবরোধের মধ্যেও বিশ্বিবিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগে ক্লাস-পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

এদিকে অবরোধের দ্বিতীয় দিন সকালেও বিশ্ববিদ্যালয়ের উদ্দেশ্যে কোনো শাটল ট্রেন ছেড়ে যায়নি। পাশাপাশি নিরাপত্তার স্বার্থে চলেনি কোনো শিক্ষক বাসও। তবে অবরোধ আপাতত স্থগিত করায় এখন শাটল ও শিক্ষক বাস চলাচলে আর বাধা রইল না।

আন্দোলনকারীদের পাঁচ দফা দাবি ছিল, দিয়াজ ইরফান চৌধূরী হত্যার সুষ্ঠু তদন্তপূর্বক আদালতের নির্দেশে দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণ, তদন্তের স্বার্থে প্রক্টরিয়াল বডি থেকে সহকারী প্রক্টর আনোয়ার হোসেনকে অপসারণ, সকল আসামিদের দ্রুত গ্রেফতার ও বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বহিষ্কার, পূর্বের ময়নাতদন্ত রিপোর্ট বাতিল করে স্বচ্ছতার সঙ্গে নতুন ময়নাতদন্ত রিপোর্ট পেশ এবং শিক্ষার সুষ্ঠ পরিবেশ রক্ষার জন্য শিক্ষার্থীদের সর্বোচ্চ নিরাপত্তা নিশ্চিত করা।

Check Also

ju-satroleg

জাবি ছাত্রলীগের নতুন কমিটির দৌড়ে এগিয়ে বিতর্কিত ও অছাত্ররা

আরিফুল ইসলাম আরিফ, জাবি প্রতিনিধি: দীর্ঘ চার বছর পর জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের নতুন কমিটি ...