Thursday , December 8 2016
Home / Slider / গণমাধ্যমে মিথ্যা অপপ্রচারের অভিযোগঃ যথাযথ শাস্তির জন্য মানববন্ধন ও স্মারকলিপি প্রদান
প্রকাশঃ 05 Nov, 2016, Saturday 6:56 PM || অনলাইন সংস্করণ
ju-2

গণমাধ্যমে মিথ্যা অপপ্রচারের অভিযোগঃ যথাযথ শাস্তির জন্য মানববন্ধন ও স্মারকলিপি প্রদান

আরিফুল ইসলাম আরিফ, জাবি প্রতিনিধি: জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় (জাবি) সম্পর্কে গণমাধ্যমে মিথ্যা অপপ্রচার চালানোর অভিযোগে বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা বিভাগের ৪৫ তম আবর্তনের (১ম বর্ষ) শিক্ষার্থী জান্নাতুন নাঈম প্রীতির বিরুদ্ধে মানববন্ধন কর্মসূচি ও প্রতিবাদ সমাবেশ এবং পৃথক দুটি স্মারকলিপি প্রদান করেছে বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ শিক্ষার্থীরা।

শনিবার শহীদ মিনারের পাদদেশে বৃষ্টি উপেক্ষা করে প্রীতিলতা হল ৪৫ তম আবর্তন ও সাধারণ শিক্ষার্থীর ব্যানারে এই মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। মানববন্ধনের পর প্রীতিলতা হল ৪৫তম আবর্তন এবং সাধারণ শিক্ষার্থীদের পক্ষ থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ফারজানা ইসলামের কাছে দুটি স্মারকলিপি প্রদান করা হয়।ju-1-1স্মারকলিপিতে প্রীতিলতা হলের ৪৫ তম আবর্তনের শিক্ষার্থীরা উল্লেখ করেন, “আমরা প্রীতিলতা হলের শিক্ষার্থীরা অত্যন্ত দুঃখের সাথে জানাচ্ছি যে আমাদের প্রীতিলতা হলের ৪৫ তম আবর্তনের শিক্ষার্থী জান্নাতুন নাঈম প্রীতি সম্প্রতি গণমাধ্যমে আমাদের প্রিয় বিশ্ববিদ্যালয় সম্পর্কে অপপ্রচার চালিয়ে আসছে যা সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন, বানোয়াট ও কল্পনাপ্রসূত। তার হীন অপচেষ্টার কারণে আমরা অপমানিত ও মর্মাহত। তার লেখালেখি ও আচার-আচরণে অস্বাভাবিকতা ও অপ্রকৃতিস্থতার ছাপ স্পষ্ট। তাই আমরা আশঙ্কা করছি যেহেতু সে বিশ্ববিদ্যালয় সম্পর্কে অপপ্রচার চালানের সাহস রাখে তাহলে সে যে কোন সময় আমাদের কারও না কারও নামে মিথ্যা অপবাদ দিয়ে আমাদের শিক্ষাজীবন বাধাগ্রস্ত করতে পারে। তাই আমাদের স্বাভাবিক শিক্ষাজীবন ও ব্যক্তিগত জীবন নির্বিঘ্ন রাখার স্বার্থে জান্নাতুন নাঈম প্রীতির বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন।”

তাছাড়া সাধারণ শিক্ষার্থীরাও তাদের স্মারকলিপিতে একই ধরণের অভিযোগ এনে তাদের শিক্ষাজীবন ও ব্যক্তিগত জীবন নির্বিঘ্ন রাখার স্বার্থে জান্নাতুন নাঈম প্রীতির বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণের অনুরোধ জানান। একই সাথে তারা সাধারণ শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে সংগৃহীত গণস্বাক্ষরও সংযুক্ত করেন।ju-photoমানববন্ধনে অংশগ্রহণকারী প্রীতিলতা হলের ৪৫তম আবর্তনের নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক শিক্ষার্থী বলেন, প্রীতি ক্যাম্পাসে জনপ্রিয় হওয়া ও ফেসবুকে নিজের ফলোয়ার বাড়ানোর জন্য আমাদের প্রিয় বিশ্ববিদ্যালয় সম্পর্কে অপপ্রচার চালিয়ে আসছে যা সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন, বানোয়াট ও কল্পনাপ্রসূত। একজন সচেতন শিক্ষার্থী হিসেবে আমি এর তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি এবং তার এই মিথ্যা অপপ্রচারের যথাযথ শাস্তির দাবি জানাচ্ছি।

এ বিষয়ে কথা বলার জন্য জান্নাতুন নাঈম প্রীতির সাথে একাধিকবার যোগাযোগের চেষ্ঠা করা হলেও তাকে পাওয়া যায়নি।

প্রসঙ্গত, গত ২৭ অক্টোবর বৃহস্পতিবার ‘উইমেন চ্যাপ্টার’ নামক একটি ওয়েবসাইটে নিজ নামে মানসিকভাবে নির্যাতিত হওয়ার কথা লেখেন প্রীতি। লেখাটি প্রকাশিত হওয়ার পর থেকেই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তুমুল আলোচনা-সমালোচনা শুরু হয় । টক অব দ্যা ক্যাম্পাসে পরিণত হয় বিষয়টি। প্রীতির লেখাকে কেন্দ্র করে এর পক্ষে-বিপক্ষে অবস্থান নেন শিক্ষার্থীরা।

Check Also

brt_bg2_654847924

যাত্রী-সম্পদের ক্ষতিপূরণের বিধান রেখে বিআরটি বিল পাস

বিশেষ প্রতিনিধি: বিআরটিতে ভ্রমণকারী যাত্রীদের বাধ্যতামূলক জীবন বীমা ও কোনো দুর্ঘটনায় যাত্রী ছাড়া অপর কোনো ...