Saturday , December 10 2016
সদ্য প্রাপ্ত
Home / Slider / খাদিজার মতোই কোপানোর হুমকি ফজিলাতুন্নেসাকে
প্রকাশঃ 06 Oct, 2016, Thursday 7:41 PM || অনলাইন সংস্করণ
fozilatun

খাদিজার মতোই কোপানোর হুমকি ফজিলাতুন্নেসাকে

প্রজন্ম ডেস্কঃ শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রলীগ নেতা বদরুলের ফাঁসির দাবিতে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের মুখপাত্র ফজিলাতুন্নেসাকে মোবাইলে হত্যার হুমকি দেয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

বৃহস্পতিবার দুপুরে মহিলা কলেজের শিক্ষার্থী ফজিলাতুন্নেসা যখন তার সহপাঠীদের নিয়ে আন্দোলনে নেতৃত্ব দিচ্ছিলেন, তখন তার মায়ের মোবাইলে একটি অপরিচিত নাম্বার থেকে ম্যাসেজ আসে।

তাতে ফজিলাতুন্নেসাকে আন্দোলন থেকে সরে দাঁড়ানোর হুমকি দেয়া হয়। না হলে তাকেও খাদিজার মতো কোপানো হবে বলে হুমকি দেয়া হয়।

এ হুমকির পর থেকে ফজিলাতুন্নেসার পরিবারের লোকজনদের মধ্যে আতঙ্ক দেখা দিয়েছে। খবর জানাজানির পর মহিলা কলেজের আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের মধ্যেও ভয় ছড়িয়ে পড়ে।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সিলেট সরকারি মহিলা কলেজের সমাজকর্ম বিভাগের সহকারী অধ্যাপক জিল্লুর রহমান।

তিনি বলেন, আন্দোলনে নেতৃত্বদানকারী কলেজ থেকে এবার এইচএসসি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ ফজিলাতুন্নেছার মায়ের মোবাইল ফোনে ম্যাসেজ পাঠিয়ে তাকে হত্যার হুমকি দেয়া হয়। এরপর থেকে তার মা আতঙ্কে কান্নাকাটি করছেন এবং মেয়ের মোবাইল ফোন বন্ধ করে দেন।

তবে ফজিলাতুন্নেসা বলেন, হুমকি-ধামকি দিয়ে আমাদের আন্দোলনকে দমিয়ে রাখা যাবে না। বদরুলের ফাঁসির আগ পর্যন্ত তাদের আন্দোলন চলবে।

উল্লেখ্য, গত সোমবার বিকালে এমসি কলেজ ক্যাম্পাসে সরকারি মহিলা কলেজের ডিগ্রি দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী খাদিজা আক্তার নার্গিসের ওপর হামলা চালায় শাহজালাল বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের শেষবর্ষের ছাত্র ও শাবি ছাত্রলীগের সহসম্পাদক বদরুল আলম।

এ সময় সে চাপাতি দিয়ে খাদিজার শরীরের বিভিন্ন স্থানে কোপাতে থাকে। এতে খাদিজা মাথা ও পায়ে গুরুতর আঘাত পান। পরে খাদিজার সহপাঠী ও স্থানীয়রা ধাওয়া করে বদরুলকে ধরে পুলিশে সোপর্দ করে।

এদিকে, খাদিজার উপর হামলার কথা স্বীকার করে গতকাল বুধবার আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে বদরুল। সে ছাতক উপজেলার মুনিরজ্ঞাতি গ্রামের সাইদুর রহমানের ছেলে।-আমাদেরসময়

Check Also

cu_b

চবির হলে পুলিশের অভিযানে অস্ত্র উদ্ধার:ছাত্রলীগের ৩০ নেতাকর্মী আটক

মাসুম চট্টগ্রাম প্রতিনিধি:চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষের পর শাহ জালাল ও শাহ আমানত ...